আজ শুক্রবার, ২৪ নভেম্বর, ২০১৭

সদ্য প্রাপ্তঃ

*** ময়মনসিংহে সুটকেসের ভেতর যুবকের লাশ * ঢাবি অধিভুক্ত ৭ কলেজের মাস্টার্স পরীক্ষা স্থগিত * দিনাজপুরে বজ্রপাতে নিহত ৬ * দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় ছড়িয়ে পড়ছে 'সুপার ম্যালেরিয়া' * রিয়ালের পথের ইতি টানতে চান বেনজেমা * মধ্যবাড্ডায় অগ্নিকাণ্ডে মায়ের মৃত্যু, ২ সন্তান দগ্ধ * পূর্ণাঙ্গ কমিটি নেই: বাড়ছে ক্ষোভ, ঝিমিয়ে পড়া

Bangladesh Manobadhikar Foundation

Khan Air Travels

বিডিনিউজডেস্ক ডেস্ক | তারিখঃ ১২.০৯.২০১৭

পর্যটন শহর রাঙামাটিতে প্রতি বছর দুই ঈদকে কেন্দ্র করে প্রচুর পর্যটকের সমাগম হয়।

তবে সম্প্রতি পাহাড় ধস ও সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থার বেহাল দশায় এবারের ঈদুল আযহায় পর্যটকদের সমাগম বিগত বছরের তুলনায় অত্যন্ত নগণ্য। গেল রমজানের ঈদেও তেমন পর্যটক আসেনি রাঙামাটির পর্যটন এলাকাগুলোতে।

পাহাড়ধসের আঁছ এখনো কেটে উঠতে পারেনি বলে জানান হোটেল-মোটেলের ব্যবস্থাপকরা। হোটেল সুফিয়া ইন্টারন্যাশনালের ব্যবস্থাপক সাইফুল ইসলাম বলেন, এবছর হোটেল ব্যবসায় একেবারে ধস নেমেছে। ঈদকে ঘিরে পর্যটকের তেমন কোন দেখা নেই। তিনি আরো বলেন, পাহাড়ধসের পর পর্যটকরা এখনো আতঙ্কিত। রাঙামাটিতে তারা আসতে চায়না।

টুরিস্ট বোর্ড চালক জামাল উদ্দিন বলেন, পর্যটন শহর রাঙামাটিতে প্রতিবছরই দুই ঈদকে কেন্দ্র করে প্রচুর পর্যটকের সমাগম হয়। তবে পাহাড়ধস ও সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা পুরোদমে চলাচল না হওয়াও গেল রমজানের ঈদে তেমন পর্যটক আসেনি। এবারও পর্যটক দেখা যাচ্ছে না। এতে করে তাদের লোকসানের পরিমান দ্বিগুণ বলে জানান তিনি।

রাঙামাটি পর্যটন কর্পোরেশনের ব্যবস্থাপক আলোক বিকাশ চাকমা বলেন, এই ঈদে অন্য বারের মত রুম বুকিং নেই। ঈদের দিন ১৫ টির মতো বুকিং ছিলো। এদিকে কাপ্তাই হ্রদের পানি বেড়ে যাওয়ায় ঝুলন্ত সেতু ডুবে গেছে এজন্য পর্যটকদের আকর্ষণ কমে গেছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।